• বিভাগঃ ঢাকা
  • জেলাঃ গোপালগঞ্জ
  • উপজেলাঃ গোপালগঞ্জ সদর

বিল্লাল শেখ গোপালগঞ্জ শহরের মিয়াপাড়ায় অন্যের জমিতে ঘর তুলে স্ত্রী সন্তান নিয়ে নিদারুণ কষ্টের মধ্যে এক অনিশ্চিত জীবন যাপন করছিলেন। তিনি পেশায় রিক্সাচালক হওয়ায় তার নিজের রিক্সাটি রাখার কোন স্থান ছিলনা। অন্যের জমিতে আশ্রিত হয়ে একটি মাথা গোঁজার ঠাঁই পেলেও রিক্সা রাখার কোন ব্যবস্থা করতে পারেনি। নিজস্ব কোন জায়গা জমি না থাকায় মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে নির্মিত চরমানিকদাহ আশ্রয়ন প্রকল্পে দুই শতাংশ জমিসহ একটি ঘর বরাদ্দ পান। সেখানে তার থাকার ব্যবস্থার পাশাপাশি রিক্সা রাখার ব্যবস্থাও হয়ে যায়। তার স্ত্রীও একজন কর্মজীবী মানুষ। সে মানুষের বাসায় কাজ করে । মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেয়ে বিল্লাল ১৭ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে একটি বাছুরসহ গাভী ক্রয় করে। একটি ছোট্ট গোয়াল ঘরে গরু রাখার ব্যবস্থা হয়। সেটাও তার নিজের জায়গায়। বিল্লাল এবং তার স্ত্রী দুজন মিলে গরু পালন করে। গাভীটি প্রতিদিন দুই কেজি দুধ দেয়। দুধ বিক্রির টাকা তাদের সংসারে কাজে লাগে। বিল্লাল তার জমিতে আমগাছ, পেয়ারা গাছ, মেহেগুনি গাছ এবং লেবু গাছসহ বিভিন্ন সবজি চাষ করতে শুরু করেছে।

নিজে এক খন্ড জমির মালিক হয়েছে বিধায় এসব সম্ভব হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেয়ে তারা আজ অনেক খুশি। বর্তমানে তারা দুর্দশা কাটিয়ে একটি সুখী জীবন যাপন করছে।